কবিতা মেঘের পরশ

কবিতা মেঘের পরশ
-সাবেরা সুলতানা সুমী

তোমার কথা ভাবতেই চোখে নামে জলের ধারা
কতোটা জমিন দিয়েছো হৃদয় থেকে হয়নি জানা।

দিয়েছি আমি মনের পুরো আকাশটা তোমায়
আঁধারে ঢেকে আছে মেঘে নীলাকাশ আমার
সেখানে দিও তুমি একচিলতে জ্যোৎস্না মেখে।

পদ্মা মেঘনা যমুনার জলের গভীরতা জানো?
জানিনা আমি জলের গভীরতা
হারিয়েছি যে ভালোবাসা ভুবনের গভীরতায়!
তোমার ঐ লোমশ বুকের অরণ্যে।
ওইখানটায় এঁকেছি যে কল্পলোকের ছবি।

স্বল্পালোকের সে কাব্যপুরুষ হ্যাঁ তুমিই যে!
আমার ভাবুকতা কি ভাবায় তোমায়?
ভাবো কি তুমি এক লাজুকলতার কথা?
ডাকতে যাকে মাধবীলতার নামে।
কামনা বাসনা সব তোমাতেই মিশে আছে।

চলো না হারাই ঐ নীলাকাশের মেঘের ভিড়ে।
মেঘের পরশ গায়ে মেখে হাঁটব দুজন
জন্ম জন্মান্তরের দিবা-রাত্রি ভর।

হারায় যেথা নীড়ের পাখি ডানা মেলে
শঙ্খচিল আর ডাহুকেরা গায় গান।
শাপলার বিলের রঙে রঙিন হয়ে।
আলোছায়ার খেলায় মাতামাতিতে।