রহস্যময় এই নারীকে খুঁজছে পুলিশ

বাংলাবাজার পত্রিকা
ঢাকা: রহস্যময় এক নারীকে খুঁজছে পুলিশ। দুবাই প্রবাসী এক ব্যক্তির বাংলাদেশি ব্যাংক একাউন্ট থেকে ১৩ লাখ টাকা গায়েব হওয়ার ঘটনায় ওই নারীর সন্ধানে মাঠে নেমেছে পুলিশ।

বেসরকারী একটি ব্যাংকের বুথ থেকে টাকা তোলার সময় ধারণ করা ওই নারীর সিসিটিভি ফুটেজ থেকে নেয়া ছবি প্রকাশ করে পুলিশ তাকে ধরিয়ে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছে।

এদিকে ওই টাকার মালিক প্রবাসী সাইফুল ইসলাম ঘোষণা দিয়েছেন, ওই নারীর সন্ধানদাতাকে পুরস্কার হিসেবে এক লাখ টাকা দেয়া হবে।

গত বছরের ৯ নভেম্বর রমনা থানায় টাকা চুরির অভিযোগ করেন প্রবাসী সাইফুল ইসলাম। সেখানে বলা হয়, সাউথইস্ট ব্যাংকে তার একাউন্টে থাকা ১৩ লাখ টাকা গায়েব হয়ে গেছে।

ওই একাউন্ট পরিচালনার জন্যে ব্যাংক থেকে দেয়া এটিএম কার্ডটিও পাওয়া যাচ্ছে না। সেই কার্ডেই তিনি পিন কোড লিখে রেখেছিলেন বলে জানিয়েছেন।

তদন্তে নেমে গোয়েন্দা পুলিশ জানতে পারে, ২০১৯ সালের ৭ জুলাই থেকে ১৮ আগস্টের মধ্যে বিভিন্ন সময়ে রাজধানীতে ওই ব্যাংকের ছয়টি বুথ থেকে ওই অ্যাকাউন্টের টাকা তুলেছেন এক নারী।

গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার আশরাফউল্লাহ বলেন, ব্যাংক স্টেটমেন্টে সাইফুলের অ্যাকাউন্ট থেকে যে সময় টাকা তোলা হয়েছে, ছয়টি বুথের সিসি ক্যামেরার ভিডিও যাচাই করে দেখা গেছে ওই সময়গুলোতে একজন নারীই টাকা তুলেছেন। গত বছর মাঝামাঝি সময়ে ঢাকায় আসার পর কিছুদিন থেকে আবার দুবাই চলে যান সাইফুল।

নভেম্বর মাসে ফের ঢাকায় এসে সাউথইস্ট ব্যাংক থেকে টাকা তুলতে গিয়ে দেখেন অ্যাকাউন্টে টাকা নেই। ওই ব্যাংকের ডেবিট কার্ডও আর তিনি খুঁজে পাননি।

পুলিশ কর্মকর্তা আশরাফউল্লাহ বলেন, সাইফুলের বেশ কয়েকটি ব্যাংকের কার্ড রয়েছে। গত বছর মাঝামাঝি যখন ঢাকায় আসেন তখন তার সাউথইস্ট ব্যাংক থেকে টাকা তোলার প্রয়োজন না হওয়ায় কার্ডের ব্যাপারে খুব নজর ছিল না।

নভেম্বরের প্রথম দিকে ঢাকায় এসে ওই ব্যাংক থেকে টাকা তোলার প্রয়োজন হয় সাইফুলের। কিন্তু মানিব্যাগ হাতড়ে দেখেন, অনান্য ব্যাংকের কার্ড থাকলেও সেখানে সাউথইস্ট ব্যাংকের কার্ডটি নেই। ব্যাংকে গিয়ে দেখেন অ্যাকাউন্টে থাকা ১৩ লাখ টাকাও গায়েব। পরে ব্যাংকের পরামর্শেই তিনি মামলা করেন।

আশরাফউল্লাহ বলেন, অনেকগুলো কার্ড থাকায় কার্ডেই পিন কোড লিখে রেখেছিলেন বলে সাইফুল আমাদের জানিয়েছেন।

তার ধারণা, খুব কাছের কেউ কৌশলে মানিব্যাগ থেকে কার্ডটি চুরি করেছে এবং ওই নারীকে দিয়ে টাকা তুলিয়ে নিয়েছে।

ভিডিও ফুটেজে পাওয়া নারীর ছবি দেখানো হলে সাইফুল তাকে চেনেন না বলে গোয়েন্দা পুলিশকে জানিয়েছেন।

পুলিশ কর্মকর্তা আশরাফউল্লাহ বলেন, ওই নারীর সন্ধান যে দিতে পারবে, তাকে এক লাখ টাকা পুরস্কার দেয়া হবে বলে সাইফুল আমাদের জানিয়েছেন।