গৃহবধূ কর্তৃক প্রবাসী যুবক অপহরণ, ৪ মাস পর উদ্ধার

বাংলাবাজার পত্রিকা
সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ): সিরাজদিখানে ইমরান বেপারী নামে এক প্রবাসী যুবককে অপহরণ করে এক গৃহবধূ ৪ মাস আটকে রাখে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে মামলা দায়ের হওয়ার পর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার উপজেলার জৈনসার ইউনিয়নের খিলগাও গ্রাম থেকে ওই যুবককে উদ্ধার করে সিরাজদিখান থানা পুলিশ।

এস-আই তন্ময় মন্ডলের নেতৃত্বে ভিকটিম ইমরান বেপারীকে উদ্ধার করা হয়। এর আগে আসামী গৃহবধূ মায়া আক্তারকে শ্রীনগর উপজেলা কয়কীর্তণ থেকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়।

জানাযায়, এক সন্তানের জননী গৃহবধূ মায়া আক্তার উপজেলার খিলগাও গ্রামের আবু বক্করে স্ত্রী ও একই গ্রামের ছোবাহান বেপারীর ছেলে ভিকটিম ইমরান।

এ ঘটনায় ইমরানের বড় ভাই মনির হোসেন গত বছর ২৫ নভেম্বর আদালতে মায়া আক্তারসহ অজ্ঞাতনামা বেশ কয়েক জনকে বিবাদী করে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলা সূত্রে জানাযায়, তাদের মধ্যে প্রায় সময় মোবাইল ফোনে কথপোকথন হতো। সেই সুবাদে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

ইমরান প্রবাস থেকে দেশে ফেরার পর প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ২০১৯ সালের ২৩ অক্টোবর সন্ধ্যায় ইমরান বেপারীর বসত বাড়ীর সামনের রাস্তা থেকে মায়া আক্তার ও তার সহযোগীরা মিলে ইমরানকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

সিরাজদিখান থানার ওসি মো. ফরিদ উদ্দিন জানান, দুজনই প্রাপ্ত বয়স্ক। প্রেমের সম্পর্কের কারণে ঘটনাটি ঘটতে পারে।

ছেলের ভাইয়ের দায়ের করা আদালতের মামলার প্রেক্ষিতে আমরা ছেলেকে উদ্ধার ও মহিলাকে গ্রেপ্তার করে দু’জনকেই আদালতে পাঠিয়েছি।