ভূমি অধিগ্রহণের ন্যায্যমূল্যের দাবিতে মানববন্ধন

বাংলাবাজার পত্রিকা
জামালপুর: সড়ক প্রশস্তকরণের জন্য ভূমি অধিগ্রহণে ন্যায্যমূল্য নির্ধারণসহ ৫ দফা দাবিতে মানববন্ধন করেছেন জামালপুরের ৪টি মৌজার জমির মালিক ও ব্যবসায়ীরা। বুধবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ময়মনসিংহ-জামালপুর মহাসড়ক অবরোধ করে এ মানববন্ধন করেন তারা। মানববন্ধন চলাকালে এ মহাসড়কে আটকা পড়ে সব ধরণের যানবাহন। সৃষ্টি হয় তীব্র যানজটের।

জামালপুর-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ৩৩ কিলোমিটার মহাসড়ক প্রশস্তকরণ প্রকল্পে জামালপুরের নান্দিনা বাজার এলাকার দক্ষিণপাশে ভূমি অধিগ্রহণের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। এতে ন্যায্যমূল্য না পাবার শঙ্কাসহ ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের যথাপোযুক্ত ক্ষতিপূরণ দাবি করেন নান্দিনা, বাদেচাঁন্দি, অনন্তবাড়ি ও খড়খড়িয়া মৌজার জমির মালিক ও ব্যবসায়ীরা।

মানববন্ধনে সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামান বেলাল, জেলা পরিষদের সদস্য ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো: নজরুল ইসলাম,রানাগাছা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল আওয়াল, স্থানীয় ব্যবসায়ী আতিকুর রহমান হামেদী লোটাস,নান্দিনা সকাল বাজার বণিক সমিতির সভাপতি মো: সুরুজ্জামান সরকারসহ ব্যবসায়ী ও ক্ষতিগ্রস্থরা বক্তব্য রাখেন।

বক্তারা বলেন, মহাসড়ক প্রশস্তকরণ প্রকল্পে নান্দিনা বাজারের দক্ষিণ পাশে জমি অধিগ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। নান্দিনা বাজারের উত্তরপাশে ব্রহ্মপুত্র নদ থাকায় শুধুমাত্র দক্ষিণপাশের জমি অধিগ্রহণে চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে ব্যবসায়ীরা। দক্ষিণপাশে রয়েছে ব্যাংক-বীমা ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান। ঐতিহ্যবাহী নান্দিনা বাজারে বর্তমান প্রতি শতক জমির মূল্য রয়েছে ৫০ থেকে ৭০ লাখ টাকা। সেই সাথে রয়েছে ছোটবড় স্থাপনা। আশঙ্কা করা হচ্ছে, জমির মালিকেরা প্রকৃতমূল্য পাবেন না। প্রশাসন থেকে পর্যাপ্ত তথ্য সরবরাহ না থাকায় এবং মূল্য নির্ধারণে ধীর গতির কারণে এই শঙ্কা আরও ঘনীভূত হচ্ছে।

জমির মালিকগণের বরাবর জমি অধিগ্রহণের বিষয়ে সকল প্রকার তথ্য সরবরাহ ও নিশ্চিত করা, জমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া দ্রুততম সময়ের মধ্যে সম্পন্ন, জমির সঠিক ও ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত,সম্পূর্ণ জমি অধিগ্রহণকৃত মালিকগণকে পুনর্বাসন,ভাড়াটিয়া দোকানদার ও ব্যবসায়ীদের ন্যায্য ক্ষতিপূরণ নিশ্চিত করার ৫ দফা দাবি জানিয়েছেন বক্তারা। এসব দাবি মানা না হলে কঠোর আন্দোলনের আলটিমেটাম দেন তারা।