হবিগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নারীসহ নিহত ৪

বাংলাবাজার পত্রিকা
হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের বাহুবল ও নবীগঞ্জ উপজেলায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নারীসহ ৪ জন নিহত এবং অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন।

পুলিশ জানায়, হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার কামাইছড়া এলাকায় ঢাকা-সিলেট পুরাতন মহাসড়কে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি যাত্রীবাহি বাস খাদে পড়ে দুই নারীসহ তিনজন নিহত হন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ৩০ জন।

অপরদিকে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নবীগঞ্জ উপজেলার ঢাকা- সিলেট মহাসড়কে আউশকান্দি মিনাজপুর নামকস্থানে এক বৃদ্ধা নিহত হয়েছে।

নিহত চারজনের মধ্যে তিনজনের নাম-পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন- দুর্ঘটনাকবলিত বাসের হেলপার বাহুবল উপজেলার মড়ুরা গ্রামের আবু সাঈদ (৩০), একই উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের ইসলাম উদ্দিনের মেয়ে কমলা বেগম (৩৫) এবং নানু মিয়া (৭০)। আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে শ্রীমঙ্গল থেকে হবিগঞ্জগামী যাত্রীবাহি বাসটি কামাইছড়া পাহাড়ি এলাকার টার্নিং পয়েন্টে পৌঁছলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পাহাড়ের নিচে খাদে পড়ে যায়। খবর পেয়ে শায়েস্তাগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহতদের উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় ঢাকা-সিলেট পুরাতন মহাসড়কে কিছু সময়ের জন্য যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ওই সড়কে প্রায় দেড় ঘণ্টাপর যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। বাহুবল মডেল ও সাতগাও হাইওয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার তৎপরতা তদারকি করে।

বাহুবল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ কামরুজ্জামান দুর্ঘটনার তথ্য নিশ্চিত করে বলেছেন, বাহুবলে নিহত তিনজনের মধ্যে দুইজনের পরিচয় পাওয়া গেছে।

আহতদের উদ্ধার করে শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্র, বাহুবল উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

অপরদিকে হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার ঢাকা- সিলেট মহা সড়কে আউশকান্দি মিনাজপুর নামকস্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় নানু মিয়া (৭০) নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়।

তিনি বৃহস্পতিবার রাতে এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে রাত সাড়ে ৮টার দিকে বাড়ি ফেরার পথে অজ্ঞাত একটি দ্রুতগামী গাড়ি তাকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি প্রাণ হারান। খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজন মহাসড়কের দু’পাশের রাস্তা বন্ধ করে দেয়। নানু মিয়া নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের মিনাজপুর গ্রামের বাসিন্দা।

খবর পেয়ে শেরপুর হাইওয়ে ও নবীগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে। এক ঘণ্টা পর ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।