তথ্য প্রতিমন্ত্রীর অনুষ্ঠানে যাওয়ায় ১০ শিক্ষার্থীকে পিটুনি

বাংলাবাজার পত্রিকা
জামালপুর: জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কনফারেন্সে ট্রেন উদ্বোধন উপলক্ষ্যে তথ্য প্রতিমন্ত্রীর অনুষ্ঠানে যাওয়ার অপরাধে শাহীন স্কুলের ১০ শিক্ষার্থীকে পিটুনি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত শাহীন স্কুলের তারাকান্দি শাখার পরিচালক রবিন হাসানকে (৩৫) মঙ্গলবার বিকেলে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

তারাকান্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ২৬ জানুয়ারি সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জামালপুর এক্সপ্রেস ট্রেন উদ্বোধন উপলক্ষে মতিয়র রহমান তালুকদার রেলওয়ে স্টেশনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এতে তথ্য প্রতিমন্ত্রী আলহাজ ডা. মো. মুরাদ হাসান এমপি উপস্থিত ছিলেন। টাঙ্গাইল থেকে পরিচালিত শাহীন স্কুল এন্ড কলেজের তারাকান্দি শাখার দশম শ্রেণির কয়েকজন শিক্ষার্থী ওই অনুষ্ঠানে যোগদান করে।

পরদিন সোমবার শিক্ষার্থীরা স্কুলে এলে পরিচালক রবিন হাসান তাদের ওপর ক্ষুব্ধ হন। অনুমতি না নিয়ে স্কুলের বাইরে যাওয়ার অভিযোগে শ্রেণিকক্ষের দরজা বন্ধ করে তিনি ১০ শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পেটান।

এতে দশম শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী রাফি আল হাসান, শেখ জাহিদুর রহমান, রকিবুল ইসলাম রনি, শান্ত, সীমান্ত, নির্জন, রাকিব, মারুফ, সালমান ও নোমানের শরীর রক্তাক্ত জখম হয়।

ঘটনাটি চেপে রাখার চেষ্টা করা হলেও শিক্ষার্থীরা বাড়ি ফেরার পর রাতে অসুস্থ্য হয়ে পড়ে এবং জানাজানি হয়।

এ ঘটনার পর মঙ্গলবার সকালে শিক্ষার্থী রকিবুল ইসলাম রনির বাবা শামীম আহমেদ পার্শ্ববর্তী তারাকান্দি তদন্তকেন্দ্রে লিখিত অভিযোগ দেন।

পরে বেলা ১১টার দিকে পুলিশ শাহীন স্কুলের তারাকান্দি শাখার পরিচালক রবিন হাসানকে ক্যাম্পাস থেকে আটক করেছে পুলিশ।

পিটুনির শিকার শিক্ষার্থী রাফি আল হাসানের বাবা মোশরেকুল আলম লিচু বলেন, আমার ছেলেসহ শিক্ষার্থীরা ট্রেন উদ্বোধনের অনুষ্ঠানে যাওয়ায় স্কুলের পরিচালক তাদের মারধর করেছে।

শিক্ষার্থীরা না বলতে চাইলেও গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ায় বিষয়টি আমরা জানতে পেরে অভিযোগ দায়ের করি।

তারাকান্দি তদন্তকেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মহব্বত কবীর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আটককৃত শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে।