নির্বাচনী প্রচারণা শেষ বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে

বাংলাবাজার পত্রিকা
ঢাকা: জমজমাট প্রচারণা গরম ঢাকার ভোটের হাওয়া। দুই সিটি করপোরেশনের প্রচারণা শেষ হবে বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে।

১ ফেব্রুয়ারি হবে ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন। নির্বাচনী বিধি অনুযায়ী ভোটের ৩২ ঘণ্টা আগে প্রচারণায় নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

নির্বাচনের দিন সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত একযোগে সব কেন্দ্রে ভোট হবে ইভিএমে। তাই নতুন ভোটারদের মাঝে রয়েছে ব্যাপক উৎসাহ।

এদিকে শেষ মুহূর্তে বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগে ব্যস্ত আওয়ামী লীগ, বিএনপির মেয়রপ্রার্থীরা। আধুনিক নগরী গড়তে নানা প্রতিশ্রুতির ফুলঝুরি নিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন প্রার্থীরা।

মেয়রের পাশাপাশি নিজ এলাকার উন্নয়নে নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে নিজ নিজ প্রতীকে ভোট চাইছেন কাউন্সিলর প্রার্থীরা।

অন্যদিকে আওয়ামী লীগ বিএনপি দুপক্ষই একে অপরের বিরুদ্ধে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করছে নির্বাচন কমিশনে।

জাতীয় প্রেসক্লাবে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছেন ঢাকা দক্ষিণের বিএনপি মনোনীত মেয়রপ্রার্থী ইশরাক হোসেন।

অন্যদিকে বুধবার নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছেন শেখ ফজলে নূর তাপস। জনগণের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছেন উল্লেখ করে তাপস বলেন, জয়ী হলে জনগণকে সঙ্গে নিয়েই নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে চাই।

নির্বাচনী প্রচারের তোড়জোড়ে আর সবই ঢাকা পড়ে গেছে; রাজধানী ঢাকা এখন প্রকৃত অর্থেই নির্বাচনের নগরী।

দুয়ারে এসে গেছে নির্বাচন। দলমত-নির্বিশেষে সব প্রার্থী চষে বেড়াচ্ছেন মহানগরীর অলিগলি, রাজপথ, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানসহ সর্বত্র; সঙ্গে প্রতিশ্রুতির ডালি।

দেশে কোনো নির্বাচন নিয়ে সব দলের সামগ্রিক অংশগ্রহণে এমন উৎসবমুখর পরিবেশ অনেক দিন দেখেনি ঢাকাবাসী, দেশবাসীও।

এবারের নির্বাচনেও রয়েছে পরস্পরের বিরুদ্ধে প্রার্থীদের অভিযোগ, রয়েছে আপত্তি। শঙ্কাও রয়েছে। তবে এ সবই নির্বাচনের অংশ, ক্ষেত্রবিশেষে জয়ের কৌশলও।

স্থানীয় সরকারের এ নির্বাচনে দেশের রাজনীতিতে প্রধান দুই দল হিসেবে বিবেচিত আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যেও চলছে লড়াই, ছুটছে বাক্যবাণ।