যুক্তরাষ্ট্রে প্রেমিকের গুলিতে বাংলাদেশি যুবতী নিহত

বাংলাবাজার পত্রিকা
নিউ ইয়র্ক: যুক্তরাষ্ট্রের ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যে প্রেমিকের সাথে দেখা করতে গিয়ে প্রেমিকের গুলিতে নিহত হয়েছেন সিন্থিয়া কস্তা নামে এক বাংলাদেশি যুবতী। বেশ কয়েকদিন আগে এ ঘটনাটি ঘটলেও গত শুক্রবার ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্য পুলিশ বিষয়টি নিশ্চিত করে নিহতের পরিবারকে জনিয়েছে। খবর বাংলা প্রেসের

গত ১৩ জানুয়ারি সিন্থিয়া গাড়ি চালিয়ে ইন্ডিয়ানায় অবস্থানরত তার বয়ফ্রেন্ডের সাথে দেখা করতে গেলে সেখানে তার কৃষ্ণাঙ্গ প্রেমিকের গুলিতে সিন্থিয়া কস্তা (২২) নিহত হন বলে সিনথিয়ার পরিবার জানিয়েছেন। সিনথিয়া তার বাবা এন্ড্রু ডি’কস্তা ও মা সিসিলিয়া কস্তা মেরিল্যান্ডের সিলভার স্প্রিং শহরে বাস করতেন।

এ সংবাদ পাওয়ার পর মেরিল্যান্ডসহ মেট্রো ওয়াশিংটন এলাকার প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

জানা যায়, ওয়াশিংটন ডিসিতে একটি সম্মেলনে ডেরিক নামের এক কৃষাঙ্গ যুবকের সাথে দেখা হয়েছিলে সিন্থিয়া কস্তার।

ডেরিক সিন্থিয়াকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলো। সিনথিয়া বিষয়টি নিয়ে তার মা বাবার সাথে আলাপ করে। তারা যুবকে দেখতে চাইলে সে ওই যুবককে বাসায় নিয়ে পরিচয় করিয়ে দেয়।

সেনাবাহিনীতে কর্মরত সুঠাম দেহের ডেরিকের সাথে মেয়ের বিয়ে দিতে না চাইলেও সিন্থিয়া ওই যুবকের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে।

ডেরিক ভার্জিনিয়ায় থাকতে সিন্থিয়া প্রায় তার বাসায় যেত। এক সময় দু’জনের মাঝে মনোমালিন্য দেখা দেয় এবং ছয় মাস পূর্বে মা বাবার কাছে চলে আসে সিন্থিয়া।

তার মা কারণ জানতে চাইলে সিন্থিয়া জানায়, ওই যুবক সেনাবাহিনীর চাকরি ছেড়ে দিয়েছে। তাকে ইন্ডিয়ানা নিজ বাড়িতে নিয়ে যেতে চায় সে। কিন্তু সে আত্মীয়-স্বজন ছেড়ে মেরিল্যান্ড ছাড়তে চায় না। এই নিয়ে দু’জনের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি ঘটে।

গত ১৩ জানুয়ারি মা বাবার নিষেধ অমান্য করে সিন্থিয়া গাড়ি চালিয়ে ইন্ডিয়ানায় অবস্থানরত তার বয়ফ্রেন্ডের সাথে দেখা করতে যায়। সিন্থিয়া ইন্ডিয়ানা থেকে তার মার সাথে প্রায় প্রতিদিন টেলিফোনে কথা বলতো সব ঠিক আছে। গত শুক্রবার বিকেলে ইন্ডিয়ানা পুলিশ সিন্থিয়া বাবাকে ফোনে জানান, তার মেয়ে গুলিতে নিহত হয়েছেন।

পুলিশ ইতোমধ্যে যুবককে গ্রেফতার করেছে। প্রথমে ঘটনা আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা চলছিলো। পরে ময়না তদন্তের পুলিশ নিশ্চিত হয়েছেন যে তাকে পিছন থেকে মাথায় গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।

আত্মহত্যা করলে পিছন থেকে কিভাবে গুলি করা সম্ভব? পুলিশ সন্দেহভাজন যুবককে জেরা করলে সে হত্যার কথা স্বীকার করে। সিন্থিয়ার মরদেহ এখনো ইনিডিয়ানার মর্গে রয়েছে।