আওয়ামী লীগ নেতা হত্যাকাণ্ডে ৩ জনের ফাঁসি

বাংলাবাজার পত্রিকা
লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুরে আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল মান্নান ভূঁইয়াকে গলা কেটে হত্যার দায়ে ৩ জনের ফাঁসি ও ৫ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছে আদালত।

এ সময় প্রত্যেকের ১০ হাজার টাকা করে জরিমানার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মো. শাহেনূর এই রায় দেন।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন— সদর উপজেলার চরশাহী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কফিল উদ্দিন (৩৫), একই ইউনিয়নের পিতারকান্দি গ্রামের আবদুর রহমান (৩৮) ও মো. জয়নাল (৪০)।

যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন— ওই গ্রামের মো. জুলফিকার, খোরশেদ আলম, ইয়াসিন আরাফাত রাফি, মো. মুক্তার ও মো. শাহজালাল।

আসামিপক্ষের আইনজীবী একেএম হুমায়ুন কবির জানান, উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে আসামিদের মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করা হচ্ছে।

হত্যার সঙ্গে আসামিরা জড়িত আছে বলে আদালতে প্রমাণ হয়নি। আমরা এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করব।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের ২২ মে বুধবার রাত ১১টার দিকে সদর উপজেলার চরশাহী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল মান্নান ভূঁইয়াকে বাড়ি থেকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে গলা কেটে হত্যা করা হয়। পরে নিজ বাড়ির পাশের রাস্তার ওপর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনার ৪ দিন পর নিহতের স্ত্রী আঞ্জুমানারা বেগম বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে সদর থানায় হত্যা মামলা করেন।

২০১৫ সালের ২ জুন জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ তদন্ত করে ৮ জনের বিরুদ্ধে আদলতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। দীর্ঘ সাক্ষ্যগ্রহণ ও শুনানি শেষে আদালত বৃহস্পতিবার এ রায় দেন।