উদার আকাশ বইমেলা সংখ্যা উদ্বোধন করলেন উচ্চ শিক্ষামন্ত্রী

বাংলাবাজার পত্রিকা
কলকাতা: উদার আকাশ কেবল পত্রিকা নয়, আত্মমর্যাদার অভিজ্ঞান। উদার আকাশ কেবল স্লোগান নয়, সুস্থ সমাজ গড়ার অঙ্গীকার। উদার আকাশ দিচ্ছে ডাক, ঘরে ঘরে ক্যা (সিএএ) বিরোধী চেতনা পৌঁছে যাক।

বিভেদকামী শক্তিকে প্রতিহত করতে জোটবদ্ধভাবে কালা কানুন রুখবার জোরদার আওয়াজ তুলে প্রকাশিত হল উদার আকাশ আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলা ২০২০ বিশেষ সংখ্যা।

বইমেলায় ‘উদার আকাশ’ পত্রিকার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন রাজ্যের উচ্চ শিক্ষামন্ত্রী ও ‘জাগোবাংলা’র সম্পাদক ড. পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

‘উদার আকাশ’ পত্রিকার সম্পাদক ফারুক আহমেদ বৃহস্পতিবার বইমেলায় পত্রিকাটি ড. পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের হাতে তুলে দেন।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলার সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি ত্রিদিব চট্টোপাধ্যায় ও সুধাংশু শেখর দে, অধ্যাপক ও বিশিষ্ট লেখক অভীক মজুমদার, সাংসদ দোলা সেন, বাংলাদেশের কবি ও অধ্যাপক পাবলো শাহি ও ফিরোজা বেগম।

এদিন উদ্বোধনের পর উচ্চ শিক্ষামন্ত্রী ড. পার্থ চট্টোপাধ্যায় প্রশংসা করে বললেন, সাহিত্য সংস্কৃতির বিকাশ ঘটাতে ‘উদার আকাশ’ পত্রিকা ও প্রকাশনের গুরুত্ব অসীম। বইমেলা সংখ্যায় বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা প্রকাশিত হয়েছে, যা পড়ে পাঠক সমৃদ্ধ হবেন।

ফারুক আহমেদ, মৌসুমী বিশ্বাস ও রাইসা নূর সম্পাদিত ‘উদার আকাশ’ আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলা ২০২০ বিশেষ সংখ্যায় বহু গুরুত্বপূর্ণ প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে।

সম্প্রীতির উদ্ভাসিত চেতনায় সমৃদ্ধ ও মননশীল একটি বিশেষ রচনা লিখেছেন মইনুল হাসান। তার লেখার বিষয় ‘বাঙালি ও মুসলমান’।

সিএএ-এনআরসি-এনপিআর বাতিল করার সুদৃঢ় প্রস্তাব নিয়ে চমৎকার প্রবন্ধ লিখেছেন সাংবাদিক মিলন দত্ত।

দেশ ভাগের কথা তুলে ধরেছেন মীরাতুন নাহার।

স্মরণ বিভাগে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরকে নিয়ে অসাধারণ আলোচনা করেছেন তরুণ মুখোপাধ্যায় ও শেখ রেজাওয়ানুল ইসলাম।

বিজ্ঞান বিষয় নিয়ে জরুরি পরামর্শ দিয়ে কলম ধরেছেন উপাচার্য বাসব চৌধুরী।

এছাড়াও বিশিষ্ট গুণীজনেরা নানা বিষয়ে নানা বৈচিত্র্যময় প্রবন্ধ লিখেছেন, যা বর্তমান সঙ্কটকালে বাঙালি মানসকে সমৃদ্ধ করবে।

স্মরণ বিভাগে নবনীতা দেবসেনকে নিয়ে মূল্যবান আলোচনা করেছেন বিশিষ্ট প্রাবন্ধিক ও অধ্যাপক সাইফুল্লাহ।

এছাড়াও সোহারাব হোসেনকে নিয়ে আলোচনা করেছেন প্রবীর মণ্ডল। বিস্মৃতি বরেণ্য তিলকা মাঝি ও বুধু ভকতকে নিয়ে মূল্যায়ন করেছেন পূর্ণিমা রায়।

আমরা-ওরার খোঁজে বাস্তবতার ছবি তুলে ধরে নিবন্ধ লিখেছেন রৌসনারা খাতুন।

অস্তিত্বের সঙ্কট নিয়ে কলম ধরেছেন প্রমথনাথ সিংহরায়। তার প্রবন্ধের বিষয় ধ্বংস ও সৃষ্টি, দুইয়েরই ধারক গণতন্ত্র।

গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য জোটবদ্ধভাবে সংবিধানকে, ধর্মনিরপেক্ষ গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার পবিত্রতাকে রক্ষা করার কথা সুস্পষ্ট বর্ণনা করেছেন লেখক।

বাংলা গণসংগীতের সূত্রধর কাজী নজরুল ইসলাম বিষয়ে মূল্যবান আলোকপাত করেছেন গবেষক রুবেল আনছার।

সোনা বন্দ্যোপাধ্যায় লিখেছেন মুশরেফা হোসেন সুযোগ্য অনুসারী শিল্পপতি মোস্তাক হোসেনের।

এছাড়াও দুর্দান্ত প্রবন্ধ লিখেছেন সব্যসাচী চট্টোপাধ্যায়, শুভেন্দু মন্ডল, পঙ্কজ সরকার, আজাহার হোসেন, সুদীপ্তা খেরসা, শান্তনু প্রধান প্রমুখ।

হযরত মুহাম্মদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম)কে নিয়ে মনোগ্রাহী আলোচনা করেছেন একরামূল হক শেখ।

মনে দাগ কাটার মতো গল্প লিখেছেন নলিনী বেরা, মোশারফ হোসেন, হারাধন চৌধুরী, সৈয়দ রেজাউল করিম, কুমারেশ চক্রবর্তী, দিলীপ পাল, সবিতা দত্ত, পিয়ালী সিংহ রায়, মনসুর আলী গাজী।

শ্রীলঙ্কা দেশ ঘুরে এসে ভ্রমণ কাহিনি লিখেছেন মুনমুন সেন ঘোষ। ধর্ম-কর্ম নিয়ে আলোচনা করেছেন সুধীরচন্দ্র পাল।

কবিতা, গল্প, প্রবন্ধ, স্মরণ, বিশেষ আলোকপাত, বিশেষ নিবন্ধ, দৃষ্টিকোণ, ভ্রমণ কাহিনি, অণুগল্প, অস্তিত্বের সঙ্কট, ধর্ম-কর্ম, গ্রন্থ আলোচনা।

সাক্ষাৎকার, অনুবাদ গল্প সহ একাধিক বিষয় নিয়ে ‘উদার আকাশ’ সাহিত্য সংস্কৃতির প্রসার ঘটাতে সমৃদ্ধ প্রয়াসে সফল উদ্যোগ নিয়ে আসছে বিগত ১৯ বছর ধরে।

ভাব ও ভাষা সমৃদ্ধ প্রগতিশীল ‘উদার আকাশ’ পত্রিকাটি ২০১ লিটল ম্যাগাজিনের শারদীয় সংখ্যার প্রতিযোগিতায় প্রথম পুরস্কার অর্জন করেছে ইতিপূর্বে।

অণুগল্পে সম্প্রীতির চিরকালীন বন্ধনের কথা, মাতৃত্বের এক অপূর্ব সৌন্দর্য্যের চিত্র ফুটিয়ে তুলেছেন অরূপ বন্দ্যোপাধ্যায়।

অনুবাদ গল্প লিখেছেন মবিনুল হক। তিনি সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কার-প্রাপ্ত লেখক। উর্দু সাহিত্যিক খালিদ তুরের লেখা গল্প অনুবাদ করে দেখিয়েছেন গল্পে মানবতার উৎকর্ষ কত গভীরে।

কবিতা লিখেছেন সুবোধ সরকার থেকে পাবলো শাহি। এছাড়াও ভারত বাংলাদেশের কবিরা বেশ কিছু উচ্চ মানের কবিতা দিয়ে পত্রিকার মান বাড়িয়েছেন।

মূলত ভারত বাংলাদেশ মৈত্রী অটুট রাখতে দুই দেশের লেখকরাই কলম ধরেছেন ‘উদার আকাশ’ পত্রিকার এই বইমেলা সংখ্যায়।

দুর্দান্ত প্রচ্ছদ এঁকেছেন বাংলাদেশের ‘প্রিয় মুখ প্রকাশন’-এর প্রকাশক, কবি, সাহিত্যিক ও শিল্পী আহমেদ ফারুক।

অলংকরণ করেছেন বাংলাদেশের কবি পাবলো শাহি ও ভারতের শ্রীমতী টুটু সরকার।

বইমেলায় লিটল ম্যাগাজিন প্যাভিলিয়নে ‘উদার আকাশ’ পত্রিকা ও প্রকাশনের গ্রন্থ ৩০-এ নম্বর টেবিলে পাওয়া যাচ্ছে।