করোনায় অবরুদ্ধ চীন

বাংলাবাজার পত্রিকা
ডেস্ক: করোনা ভাইরাস এখন সারাবিশ্বে আতঙ্কের এক নামে রূপ নিয়েছে। এরফলে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে রীতিমতো বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে চীন। করোনা ভাইরাস গত ডিসেম্বরে শনাক্ত হওয়ার পর বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এরই মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে এটি।

চীনে এরই মধ্যে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৭২২ জনের। এর মধ্যে হুবেই প্রদেশের উহানেই মারা গেছেন সাড়ে ৬শ’ মানুষ। চীনের বাইরে ২৫টির বেশি দেশে ভাইরাসে আক্রান্ত রয়েছেন তিন শতাধিক মানুষ। আর চীনে এ সংখ্যা ৩০ হাজারের বেশি।

তবে চীনে করোনা ভাইরাসে ২৫ হাজার মানুষ মারা গেছে বলে জানিয়েছে দেশটির প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান টেনসেন্ট।মৃতের সঠিক সংখ্যা জানালে চীনজুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়তে পারে এমন আশঙ্কায় মৃতের সঠিক তথ্য জানাচ্ছে না চীন সরকার।

এরই মধ্যে নতুন এ তথ্য দিল টেনসেন্ট। অভিযোগ রয়েছে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের কোনো ধরনের গণনা ছাড়াই সৎকার করছে চীন।

কে কখন কোথায় মারা যাচ্ছে এর কোনো হিসাব রাখা হচ্ছে না। এমনিতেই দেশটির বিরুদ্ধে গণমাধ্যমে সেনসরশিপ আরোপ করার অভিযোগ রয়েছে। তার ওপর সারা বিশ্বের সঙ্গে রীতিমতো যোগাযোগবিচ্যুত হয়ে পড়েছে দেশটি।

পশ্চিমাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ চীনের সঙ্গে সড়ক, নৌ ও বিমান যোগাযোগ বন্ধ ঘোষণা করেছে। এমনকি চীনফেরত পর্যটক, বিমানকর্মী ও পাইলটদেরও অন্য দেশে ঢুকতে অনুমতি দেয়া হচ্ছে না।

তবে প্রকৃতপক্ষে চীনে কী হচ্ছে? এর ভয়াবহতা কতটা, তা আসলে বিশ্ব সম্প্রদায়ের আন্দাজের বাইরে থেকে যাচ্ছে। চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান টেনসেন্টের ওয়েবপেজে বলা হয়েছে, ৫৬৮ নয় করোনা ভাইরাসে মৃত্যু হয়েছে ২৪ হাজার ৫৮৯ জনের।

আর আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৫৪ হাজার ২৩ জন। তাইওয়ান নিউজের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া।

খবরে বলা হয়, গত শনিবার টেনসেন্টের ওয়েবপেজে ‘মহামারি পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ’ শিরোনামে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত তথ্যে বলা হয়, করোনা ভাইরাসের মৃত্যুর সংখ্যা ২৪ হাজার ৫৮৯ জন।

অথচ সরকারি তথ্যে হাজারের কাছাকাছিও নয়। এ ছাড়া ওই ওয়েবপেজে আক্রান্তের সংখ্যা বলা হয়েছে ১ লাখ ৫৪ হাজার ২৩ জন, যা সরকারি তথ্য আক্রান্তের সংখ্যার চেয়ে দশ গুণ বেশি। তবে এমন তথ্য দেয়ার কিছুক্ষণ পরই তথ্য সংশোধন করে নেয় ওয়েবপেজ কর্তৃপক্ষ।

এরপরই সরকারি হিসাবটি লিখে দেয়া হয় সেখানে। কিন্তু এরই মধ্যে ওয়েবপেজের আগের পরিসংখ্যানটির স্ক্রিনশট করে নিয়ে নেয় অনেকে। বিষয়টি নিয়ে রীতিমতো ঝড় বইছে বিশ্বজুড়ে।