জঙ্গি সংশ্লিষ্ট কাউকেই এদেশে ঢুকতে দেয়া হবে না

বাংলাবাজার পত্রিকা
সিলেট: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, শুধু শামীমা নয়, জঙ্গি সংশ্লিষ্ট কাউকেই এদেশে ঢুকতে দেয়া হবে না।

তিনি শনিবার বিকেলে সিলেটে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন। সিলেটের মানিকপীর টিলা এলাকায় একটি কমিউনিটি সেন্টারে মোয়াজ্জেম ফাতেমা ট্রাস্টের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করেন।

এ সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আইএসের সাথে জড়িত ব্রিটিশ নাগরিক শামীমাকে বাংলাদেশে গ্রহণ করবে না।

তার সাথে বাংলাদেশের কোনো সম্পর্ক নেই। শামীমাকে নিয়ে ব্রিটিশ সরকারের মাথাব্যথা, বাংলাদেশের নয়। তার পিতা-মাতাও ব্রিটিশ নাগরিক। সে কখনোই এদেশে আসেনি বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, আইএসের সঙ্গে জড়িয়ে পড়া শামীমা বেগম সিরিয়া জঙ্গিগোষ্ঠি আইএসে যোগ দেয়ার পর তার নাগরিকত্ব বাতিল করে বৃটিশ সরকার।

এর বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ করলে সম্প্রতি বৃটেনের আদালত তার নাগরিকত্ব বাতিলের পক্ষে রায় দেয় এবং বাংলাদেশে নাগরিকত্ব চাওয়ার পরামর্শ দেয়।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত দেশ চীনে অবস্থানরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের দেশে ফিরিয়ে আনা প্রসঙ্গে ড. মোমেন বলেন, চীনে অবস্থানরত কোন বাংলাদেশি এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়নি।

সরকার পক্ষ থেকে আরও তথ্য সংগ্রহের চেষ্টা করা হচ্ছে। সেদেশে অবস্থানরত অবশিষ্ট বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদেরকে পর্যায়ক্রমে দেশে আনার ব্যবস্থা করা হবে।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাসুক উদ্দিন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

পরে তিনি সিলেট নগরীর রিকাবীবাজারস্থ কবি নজরুল অডিটরিয়ামে নাট্য প্রদর্শনী ও গুণীজন সম্মাননা অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

এর আগে বাদ জোহর মন্ত্রী নিজের মা-বাবার মাহফিরাত কামনায় বাসভবন হাফিজ কমপ্লেক্সে এক স্মরণ সভায় অংশ নেন।

শিক্ষাবিদ, ভাষাসৈনিক আবু আহমদ আল আব্দুল হাফিজ ও সৈয়দা শাহার বানু স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিলে বক্তব্য রাখেন সাবেক অর্থমন্ত্রী ও ড. মোমেনের বড় ভাই আবুল মাল আব্দুল মুহিত, সাবেক সচিব ড. এ কে আব্দুল মুবিন।

এ সময় পরিবারের সদস্য, সামাজিক, রাজনৈতিক, পেশাজীবি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।