হত্যা মামলায় শিক্ষকদের জড়াতে মিথ্যা সাক্ষ্য, প্রতিবাদে মানববন্ধন

বাংলাবাজার পত্রিকা
জামালপুর: হত্যা মামলায় মিথ্যা সাক্ষ্য দিয়ে দুই শিক্ষকসহ ১০জনকে ফাঁসানোর প্রতিবাদে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে জামালপুরের বকশীগঞ্জবাসী।

রোববার বেলা ১১টার দিকে দেওয়ানগঞ্জ-বকশীগঞ্জ সড়কের আইরমারী নতুনপাড়া এলাকায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে এলাকাবাসী ছাড়াও শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়।

মানববন্ধন শেষে সেখানে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মেরুরচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম,

একই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ, সাবেক চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান,

আইরমারী নতুন পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শহিদুর রহমান, একই বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক খবির উদ্দিন প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা দাবি করেন, ২ জুলাই ২০১৮ সালে বকশীগঞ্জ পৌর এলাকার মালিরচর গ্রামের ভাড়াটে মোটর সাইকেল চালক আবু বক্কর নুরী (৪৮) খুন হন।

এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী তাহমিনা বেগম বাদি হয়ে ইসলামপুর থানায় বেপারীসহ অজ্ঞাতনামা আরো ১০/১২জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন।

ওই মামলায় বেপারী ও নিহতের ভাতিজা লাল মিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত লাল মিয়ার ভাষ্য মতে, হাকিম আলী ও মজিদের প্ররোচণায় তার তালিকা অনুযায়ী জমি সংক্রান্ত বিরোধ থাকায় শিক্ষক শহিদুর রহমান মাস্টার ও খবির উদ্দিন খোকা মাস্টারসহ ১০ জনের নামে ১৬৪ ধারায় মিথ্যা জবানবন্দি দেয়।

তার এই মিথ্যা সাক্ষ্যের উদ্দেশ্য যেন চার্জশিটে আসামী হিসেবে শিক্ষকদের তালিকাভুক্ত করা হয়।

জমি সক্রান্ত বিরোধে নিরপরাধ মানুষকে হত্যা মামলায় জড়ানোর অপচেষ্টার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বক্তারা।

বক্তারা আবু বক্কর নুরী হত্যাকাণ্ডে প্রকৃত আসামীকে খুঁজে বের করতে সুষ্ঠ তদন্তের জন্য পিবিআই ও সিআইডিতে মামলার তদন্তভার হস্তান্তর করে দোষী ব্যাক্তিদের শাস্তি ও নির্দোশ ব্যক্তিদের মামলা থেকে অব্যহতি দেয়ার দাবি জানান।