আকাশনীলা

আকাশনীলা
-জাকিরুল ইসলাম জুয়েল

তারপর হঠাৎ বছর ত্রিশেক পর আবার দেখা হবে,
হয়তো সন্ধ্যে হবো হবো করছে,
হয়তো বিকেল যাই যাই করছে,
হঠাৎ নাকে সেই পরিচিত গন্ধ
যেই গন্ধে বিভোর হয়ে কেটেছে
আমার অর্ধেকটা কৈশোর,
আমার প্রথম যৌবন।
আগের মতোই আছো দেখছি,
মাথার চুলে কি পাক ধরেছে !
কৈ না তো!
এখনো তো আগের মতোই দেখছি তোমায়।
মনে আছে?
প্রথম যেদিন তোমায় দেখলাম,
সাদা ইউনিফর্ম, মুখে সেই স্নিগ্ধ হাসি,
সেই পরিচিত হাসি,
যে হাসিতে বন্দী হয়ে কেটে গেলো
আমার গোটা জীবন।

একটু কি বুড়িয়ে গেছো!
আমার কিন্তু তা মনে হচ্ছে না একদম ই।
বরং আগের মতোই লাগছে তোমায়,
সেই চেনা মুখ, সেই ভাসা চোখ।
মুখ ফসকে বলেই ফেললাম,
আকাশনীলা, তোমার চোখে আগের মতোই পদ্ম ফোটে???
চমকে উঠলে তুমি, সেই প্রথম দিনের মতো,
জড়োসড়ো, জুবুথুবু হয়ে চাইলে,
একদম ঠিক প্রথম দিনের মতো।

মনে হচ্ছিলো, প্রথম থেকে আবার কথা বলা শুরু করলেই,
আবার তুমি প্রেমে পড়বে, আবার তুমি ভালোবাসবে।
ইচ্ছে করছে আবার শুরু করি,
কিন্তু সময় যে সায় দিচ্ছে না আকাশনীলা,
আমি ভীষণ বুড়িয়ে গেছি,
আবার প্রথম থেকে শুরু করার সময় কি আমার আছে বলো।
চোখেও আজকাল ভালো দেখি না জানো তো,
আচ্ছা তুমি কি কাঁদছো?
হয়তো না, এ আমার চোখের ভুল,
চোখেও আজকাল কম দেখি জানো তো।