ভার্জিনিয়ার সড়কে বাংলাদেশি নিহত

বাংলাবাজার পত্রিকা
নিউ ইয়র্ক: যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ায় গাড়িতে ধাক্কায় তাহমিনা আকতার (৩৯) নামে এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। গত শুক্রবার বিকেল প্রায় পৌনে চারটার দিকে স্প্রিংফিল্ডের ৩৯ বছর বয়সী তাহমিনা আক্তার স্প্রিংফিল্ডের একটি সড়ক পারাপারের সময় এ দুর্ঘটনা সংঘটিত হয়।

ব্যাকলিক সড়কে একটি গাড়ি তাকে সজোরে ধাক্কা দিলে তার মৃত্যু হয়। নিহত তাহমিনা ১৫ ও ৪ বছর বয়সের দু’কন্যা সন্তানের জননী। খবর বাংলা প্রেসের।

২০১৯ সালের এপ্রিলে যুক্তরাষ্ট্রে আসেন তাহমিনা। স্বামী-স্ত্রী মিলে কাজ শুরু করেন।

যুক্তরাষ্ট্রে আসার পর একটি বাড়ির বেইজমেন্ট ভাড়া নেন তারা। জীবনযাত্রা ব্যয় বহুল হওয়া ম্যাকডোনাল্ডসে কাজ নেন তিনি।

স্বামীকে সহায়তা দিতেই তার এ চ্যালেঞ্জ। একটু উন্নত জীবনের আশায় যুক্তরাষ্ট্রের বুকে পাড়ি জমিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন তাহমিনা।

এমন অনাকাঙ্খিত মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে আসে প্রবাসে। অসহায় দুটি সন্তান নিয়ে এখন নির্বিকার তাহমিনার স্বামী।

চলতি বছর ফেয়ারফ্যাক্স কাউন্টিতে সড়ক দুর্ঘটনা ৮ জন পথচারির প্রাণহানি ঘটেছে বলে দাবি করেছে পুলিশ।

যে কোন দুর্ঘটনা রোধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করছে সেখানকার প্রশাসন। এদিকে, তাহমিনার স্বামী ও সন্তানদের পাশে দাঁড়িয়েছে একটি সামাজিক সংগঠন।

তারা নিহত এ বাংলাদেশির লাশ দাফনসহ পরিবারের সহায়তা একটি ফান্ডরাইজিং পেইজ খুলেছেন।

সাপোর্ট তাহমিনা বলে ১৫ হাজার ইউএস ডলার চাওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত প্রায় ১৩ হাজার ডলার জমা পড়েছে।

ভার্জিনিয়ার এক সমাজকর্মী বলেছেন, নিহত বাংলাদেশী তাহমিনাকে দাফন করা হয় ৩ মার্চ মঙ্গলবার।

মরহুমার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয় স্প্রিংফিল্ডের মদীনা ইসলামিক সেন্টারে। বাদ যোহর জানাজা শেষে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় ফেডিরিক্সবার্গেও ‘এমএএ-সিমেট্রি (কবরস্থানে)’।