বাংলাদেশ দলের পাকিস্তান সফর স্থগিত

বাংলাবাজার পত্রিকা
ঢাকা: আগামী মাসে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নির্ধারিত শেষ দফার পাকিস্তান সফর স্থগিত করা হয়েছে। সফরে একটি করে ওয়ানডে ও টেস্ট খেলার কথা ছিল বাংলাদেশ দলের।

করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বজুড়ে ভ্রমনেও নিষেধাজ্ঞা থাকায় সফরটি স্থগিতই হয়ে গেল।

সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে আজ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) যৌথভাবে আসন্ন সফরটি স্থগিত ঘোষনা করে।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিসিবি জানায়, বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের অংশ হওয়ায় নতুন করে এই সূচি নির্ধারণ করতে ভবিষ্যতে আলোচনায় বসবে দুই বোর্ড।

অনেক নাটকীয়তার পর শুরু হয় বাংলাদেশ দলের পাকিস্তান সফর। প্রথম দফার সফরে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ খেলেছিলো বাংলাদেশ।

দ্বিতীয় দফার সফরে রাওয়ালপিন্ডিতে দুই ম্যাচ সিরিজের একটি টেস্ট খেলে বাংলাদেশ। যা বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের অংশ ছিলো।

সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টটিও তারই অর্ন্তভুক্ত। আগামী ২৯ মার্চ করাচির উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়ার কথা ছিলো বাংলাদেশের।

সফরের একমাত্র ওয়ানডের সূচি ছিলো পহেলা এপ্রিল। ৫ এপ্রিল থেকে শুরু কথা ছিলো সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট।

করোনাভাইরাসের প্রভাবে গেল সপ্তাহে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশ্ব একাদশ ও এশিয়া একাদশের মধ্যকার দুই ম্যাচের টি-২০ সিরিজ ও মেগা কনসার্ট স্থগিত করে বিসিবি।

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের কারণে ইতোমধ্যে বিশ্ব ক্রিকেটের বেশক’টি সিরিজই বাতিল হয়ে গেছে।

সিরিজ শুরুর আগেই বাতিল হয় শ্রীলংকা-ইংল্যান্ডের মধ্যকার দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। প্রথম ম্যাচের পর থেমে গেছে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ।

প্রথম ম্যাচ বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হবার পর বাদ হয় ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকার তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজও।

আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে আইপিএলের ১৩তম আসর।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, করোনাভাইরাসকে মহামারী হিসেবে আখ্যায়িত করায় পাকিস্তান সুপার লিগের মাঝপথেই দেশে ফিরে যাচ্ছে প্রায় ১০জন বিদেশী খেলোয়াড়।