সেলিনা শেলীর সুবাসিনী

সুবাসিনী
-সেলিনা শেলী

হেমন্তের আগমন শিশিরে ভেজা ঘাস
কুয়াশার চাদরে ঢেকে প্রকৃতি সেজেছে নতুন সাজ,
আবছা আলো-আধারের খেলা
ভরা সাঝের বেলায় এলো কেশে সুবাসিনী,
আলতা রাঙা পা তার থমকে দাড়ায়-
নদীর ধারে বটের তলায় জানিনা কাকে খুঁজে বেরায়।

জোনিক জ্বলা ঝোপে- ঝিঝি পোকার ডাকে
সুবাসিনী অবাক চোখে স্বপ্ন বুনে চলে,
হঠাৎ ওপার থেকে ভুবন মাঝির ডাক-
হবেনা আজ খেয়া পারাপার-সুবাসিনী নিঃস্তব্দ নির্বাক!
নদীর ঘাটে একলা বসে সুবাসিনী কেবল মাঝির অপেক্ষায়।

বহু বছর পর বসন্ত এসেছে অবেলায় আজ
নতুন পত্রপল্লব,সবুজ পাতায় ছেয়েছে বন-বনানী পথ ঘাট,
চারিদিকে বসেছে শিমুল-পলাশ আর লাল কৃষ্ণচূড়ার হাট..
ঝাপসা চোখে সুবাসিনী আলতা নেই আর পায়
চঞ্চলতা নেই-ফাগুনের আগুন লাগেনা মনে তার
সুবাসিনী নেই আর মাঝির অপেক্ষায় আজ !
বসন্ত না শীত এলো তাতে কিবা আসে-যায়।