হাবিবা লাবনীর ফসলী আবেশ

হাবিবা লাবনী

বাংলাবাজার পত্রিকা
ঢাকা: ময়মনসিংহের মুক্তাগাছার মেয়ে হাবিবা লাবনীর প্রথম কাব্যগ্রন্থ ফসলী আবেশ প্রকাশিত হয়েছে। ব্যক্তি জীবনে এক সন্তানের জননী লাবনীর জন্ম ৯ নভেম্বর ১৯৮৩ সালে।

ছোটবেলা থেকেই তিনি সাহিত‍্যানুরাগী। তাই ভালোলাগা থেকেই ইংরেজি সাহিত‍্যের উপর এম এ সম্পন্ন করেছেন।

ফসলী আবেশ তার প্রথম কাব্যগ্রন্থ হলেও ২০১৩ সালের অমর একুশে গ্রন্থমেলায়র তার ‘অস্বীকৃত অবলা কাহিনী’ নামে একটি গল্পগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে।

২৮ তম বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে বর্তমানে সরকারের গুরুত্বপূর্ণ পদে কর্মরত আছেন। কাজের পাশাপাশি লেখালেখি করা তার নিত‍্য অভ‍্যাস।

ফসলী আবেশ কাব্যগ্রন্থে কবি মানব প্রেম আর প্রকৃতি প্রেমের মাঝে মেলবন্ধন ফুটিয়ে তুলেছেন।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমার এটি প্রথম প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ হলেও লেখালেখির অভ্যেসটা পুরনো। মূলত শখের বশেই কাজের ফাঁকে লেখালেখিটা চালিয়ে যাচ্ছি।

তিনি বলেন, আশা করছি আমার এ কাব্যগ্রন্থের কবিতাগুলো পাঠকের ভালো লাগবে।

হাবিবা লাবনী বলেন, একটি সৃষ্টি। একটি সন্তানের জন্মদান। হ‍্যা, আমার কাছে একটা বই মানে একজন সন্তান। আমি আমার ছেলেকে যেমন করে আমার ভেতরে তিল তিল করে বড় করে তুলেছি, তেমনি আমার প্রতিটা লেখা, প্রতিটা বই আমার বড় বেশী আবেগের বড় বেশী মায়া দিয়ে সৃষ্টি।

আমার সন্তানের চাইতে আমার লেখাকে কোন অংশেই কম করে দেখিনা কখনো। জীবন চলার পথে বিভিন্ন সময় ভিন্ন ভিন্ন পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছি।

জীবনের প্রতিটা মুহূর্তকে আমি গুরুত্ব দেই। খুব সুক্ষ ভাবে অনুধাবন করি। আর এর থেকেই আমার লেখার জন্ম হয়।

আর একটা একটা লেখা জমে যখন একটা বই হয়, এর চেয়ে আনন্দের, এর চেয়ে সুখের আর কী বা আছে একজন কথাশিল্পীর কাছে।

আমিও আজ ভীষন সুখী, ভীষন আনন্দিত। কারণ সেই জ্ঞান হওয়ার পর থেকে আমার মাঝে যে উন্মাদনার সৃষ্টি হয়েছিলো সেটি আমি ধরে রাখতে পেরেছি।

আর তা আজীবন রাখতে চাই। এই আমার জীবনের একমাত্র লক্ষ‍্য।

ফসলী আবেশ কাব্যগ্রন্থটি প্রকাশ করেছে সিঁড়ি প্রকাশন। বইটির মূল্য ধরা হয়েছে ২০০ টাকা আর প্রচ্ছদ করেছেন নিয়াজ চৌধুরী তুলি।