বাংলাদেশের সামাজিক সুরক্ষায় জার্মানি ও ইইউর ৮০০ কোটি টাকা

বাংলাবাজার পত্রিকা
ডেস্ক: বাংলাদেশের সামাজিক নিরাপত্তা ব্যবস্থার গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রগুলো শক্তিশালী করতে ও কোভিড-১৯-এ স্থিতিশীলতা গড়ে তুলতে ৮০ মিলিয়ন পাউন্ড (প্রায় ৮০০ কোটি টাকা) দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) ও জার্মানি।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২০২০ সালের অক্টোবর মাসে একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রতিক্রিয়ার পদক্ষেপ হিসেবে সরকার পোশাক কারখানা (আরএমজি), চামড়ার পণ্য এবং জুতা শিল্পের শ্রমিকদের জন্য সামাজিক সুরক্ষা কর্মসূচি গ্রহণ করে।

কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ইউরোপের প্রতিক্রিয়া এবং বাংলাদেশে এর ফলাফলের অংশ হিসেবে ইইউ এবং জার্মানির দেয়া ১১৩ মিলিয়ন পাউন্ড অনুদান থেকে এটাই প্রথম যৌথ বিতরণ।

বাংলাদেশে জাতীয় সামাজিক নিরাপত্তা কৌশল সংস্কারের বাজেট সহায়তা কর্মসূচির মাধ্যমে তহবিল সংগ্রহ করা হয়।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত রেন্সজে তেরিঙ্ক বলেন, ইইউ এবং এর সদস্য রাষ্ট্রগুলো শ্রমিকদের জন্য পর্যাপ্ত এবং টেকসই সামাজিক নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠার প্রচেষ্টাকে সমর্থন করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

২২ ডিসেম্বর শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের শ্রম বিভাগ পরিচালিত আরএমজি, চামড়া পণ্য ও পাদুকা শিল্পে বেকার ও দুঃস্থ শ্রমিকদের জন্য সামাজিক সুরক্ষা কর্মসূচির আওতায় মনোনীত কর্মীরা প্রথম মাসিক ৩ হাজার টাকা নগদ পেয়েছে।

জি২পি-এর মাধ্যমে সুবিধাভোগীদের ব্যাংক বা মোবাইল একাউন্টে স্থানান্তর প্রক্রিয়া করা হয়েছে।