ভারতের নাগরিকত্ব আইন সংঘাত সৃষ্টি করবে: ফখরুল

Mirza-Fakhrul-islam-BNP

বাংলাবাজার ডেস্ক
ভারতের নাগরিকপঞ্জি ও নাগরিকত্ব আইনকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের জন্য হুমকি বলে উল্লেখ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, নতুন এ আইন নিয়ে তারা উদ্বিগ্ন। তিনি বলেন, এই আইন উপমহাদেশে সংঘাতের সৃষ্টি করবে। শনিবার শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে মিরপুরে বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন। তিনি এই আইনকে সাম্প্রদায়িক আইন বলেও মন্তব্য করেন।

ফখরুল বলেন, ‘আমরা প্রথম থেকেই বলে আসছি, এই আইন নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন। এটাকে আমাদের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের জন্য হুমকি বলে মনে করছি।’ নাগরিকত্ব আইনের ফলে ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চের আগে বাংলাদেশ থেকে যারা ভারতে গেছেন, তারা নাগরিকত্ব পাবেন বলে নাগরিকপঞ্জিতে বলা হয়েছে। তা ছাড়া বাংলাদেশ থেকে যাওয়া মুসলিমরা নাগরিকত্ব পাবেন না বলেও নতুন নাগরিকত্ব আইনে উল্লেখ করা হয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ভারতের আইনের কারণে বাংলাদেশে শুধু নয়, সমগ্র উপমহাদেশে একটি অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সৃষ্টি করবে, সংঘাতের সৃষ্টি করবে। পরে ফখরুল তার দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন না হওয়া প্রসঙ্গে কথা বলেন। খালেদা জিয়ার বন্দিদশার জন্য তিনি সরকারকে দায়ী করেন। তিনি বলেন, ‘আজকে একটা গণতন্ত্রবিহীন, গণতন্ত্রের অধিকারবিহীন একটি অবস্থার মধ্যে আছি। আজকে আমাদের নেত্রী কারাগারে, মিথ্যা মামলায় আমাদের হাজার হাজার নেতা–কর্মী কারাগারে। মিথ্যা মামলা দিয়ে গণতান্ত্রিক দলগুলোকে স্তব্ধ করে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। এ সময়ে আজকে সবচেয়ে বড় প্রয়োজন যেটা, তা হলো সমস্ত জাতির ঐক্য। আজকে সমস্ত জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য সংগ্রাম করতে হবে, লড়াই করতে হবে।’

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের কথা স্মরণ করে ফখরুল বলেন, ‘আজকে এই দিনে আমাদের শহীদ বুদ্ধিজীবীদের পথ অনুসরণ করে দেশের স্বাধীনতাকে রক্ষা করার জন্য, দেশের সার্বভৌমত্বকে রক্ষা করার জন্য, গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনার জন্য আমরা আমাদের সংগ্রামের গতি আরও বাড়াব। সংগ্রামকে আরও বেগবান করব।’