ইউক্রেন থেকে রোমানিয়া হয়ে ফিরতে পারবেন বাংলাদেশিরা

বাংলাবাজার পত্রিকা
ডেস্ক: ইউক্রেনে আটকেপড়া বাংলাদেশিরা পোল্যান্ডের পাশাপাশি রোমানিয়া হয়েও দেশে ফিরতে পারবেন বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। শুক্রবার এক বার্তায় তিনি বলেন, ইউক্রেনের দক্ষিণ এবং দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে যারা আছেন, তারা রোমানিয়ায় যেতে পারেন।

রোমানিয়া সরকার দুই দিনের থাকার ব্যবস্থা করবে এবং তারপর বুখারেস্টে (দেশটির রাজধানী) অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের তত্ত্বাবধানে রেখে তাদের বাংলাদেশে আসার ব্যবস্থা করা হবে।

এর আগে ‍বৃহস্পতিবার পোল্যান্ড হয়ে বাংলাদেশিদের ফেরানোর পরিকল্পনার কথা জানিয়েছিলেন প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার। বেশ কিছু দিন ধরে যুদ্ধের দামামার পর বৃহস্পতিবার রাশিয়ার বাহিনী ইউক্রেনের উপর স্থল ও আকাশপথে হামলা শুরু করে।

এখন রুশ বাহিনীর রাজধানী কিয়েভে পৌঁছে যাওয়ার খবর আসছে। যুদ্ধ পরিস্থিতিতে ইউক্রেনের বিভিন্ন শহরে অবস্থানরত বাংলাদেশিরা আটকে পড়েছেন, যাদের বেশিরভাগই শিক্ষার্থী। তারা উদ্ধারের আকুতিও জানাচ্ছেন।

ইউক্রেনের কিয়েভ থেকে পোল্যান্ড সীমান্তের দূরত্ব পাঁচশ’ কিলোমিটারের মত। এখন সেখানে বিমান চলাচল বন্ধ। স্থলপথে যানবাহন চলাচলও স্বাভাবিক নয়।

ফলে যুদ্ধ পরিস্থিতিতে পোল্যান্ড যাওয়াও কঠিন হয়ে পড়েছে বলে ইউক্রেনে অবস্থানরত বাংলাদেশিরা জানিয়েছেন। অনেক বাংলাদেশি শিক্ষার্থীর হাতে পোল্যান্ড পর্যন্ত যাওয়ার জন্য যথেষ্ট টাকাও নেই।

বাংলাদেশ থেকে সেখানে টাকা পাঠানো জটিল বলে তাদের সঙ্কট আরও বেশি। দেশটিতে বাংলাদেশের কোনো দূতাবাস না থাকায় পোল্যান্ডের ওয়ারশতে বাংলাদেশের দূতাবাস থেকে তাদের সহায়তা দেয়ার চেষ্টা চলছে।

ইউক্রেনে কত বাংলাদেশি আছেন, তার সুনির্দিষ্ট কোনো হিসাব সরকারের খাতায় নেই। তবে সেই সংখ্যা এক থেকে দেড় হাজার হতে পারে বলে ধারণা দিয়েছেন পোল্যান্ডে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সুলতানা লায়লা হোসেন।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, পোল্যান্ড-রোমানিয়ার ছাড়াও ইউক্রেনের পার্শ্ববর্তী হাঙ্গেরি, মলদোভা ও স্লোভাকিয়াতেও বাংলাদেশিরা আশ্রয় নেয়ার চেষ্টা করছেন। প্রয়োজনীয় যোগাযোগের জন্য কিছু নম্বরও সরবরাহ করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

স্লোভাকিয়া ও হাঙ্গেরিগামীদের দেখভাল করবে অস্ট্রিয়ার ভিয়েনায় বাংলাদেশ দূতাবাস।
ভিয়েনায় বাংলাদেশ মিশনের উপ-প্রধান রাহাত বিন জামান: +৪৩৬৮৮৬০৬০৩৪৪৪৯২।
কর্মকর্তা জোবায়েদুল এইচ চৌধুরী: +৪৩৬৮৮৬০৬০৩০৬৮।

রোমানিয়ার পাশাপাশি মলদোভা-গামীদের বিষয়ও দেখভাল করবে বুখারেস্ট দূতাবাস।
বুখারেস্টে দূতাবাস: +৪০(৭৪২)৫৫৩৮০৯।
মীর মেহেদী হাসান (মোবাইল ও হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপ): +৪০ (৭৪২)৫৫৩৮০৯।

পোল্যান্ডে ওয়ারশ দূতাবাসও প্রবাসী বাংলাদেশিদের তথ্য ও জরুরি যোগাযোগের জন্য কয়েকটি হটলাইন নম্বর দিয়েছে। মো. মাসুদুর রহমান: +৪৮৭৩৯৫২৭৭২২। মো. মাহবুবুর রহমান: +৪৮৫৭৯২৬২৪০৩।
ফারহানা ইয়াসমিন: +৪৮৬৯০২৮২৫৬১। বিলাল হোসেন: +৪৮৭৩৯৬৩৪১২৫। মোহাম্মদ রব্বানী: +৪৮৬৯৬৭৪৫৯০৩।

এছাড়া প্রয়োজনে বাংলাদেশিদের ওয়ারশ দূতাবাসের কর্মকর্তা অনির্বাণ নিয়োগীর নম্বরে যোগাযোগের পরামর্শ দিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। অনির্বাণ নিয়োগী: +৪৮৫৭২০৯৪৩৮১।