যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও পাকিস্তানের অভিনন্দন

বাংলাবাজার পত্রিকা
ডেস্ক: পদ্মা সেতুর নির্মাণসাফল্যকে দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক যোগাযোগের উন্নয়নে বাংলাদেশের নেতৃত্বের ‘উদাহরণ’ হিসেবে বর্ণনা করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

ঢাকায় চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেছেন, পদ্মা সেতু আমার কাছে সাহসের একটি প্রতীক, সংকল্পের প্রতীক এবং সমৃদ্ধিরও প্রতীক।

পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানিয়ে এক ভিডিও বার্তায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

অপরদিকে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানিয়েছে পাকিস্তান। ইসলামাবাদ বলছে, বাংলাদেশের উন্নয়ন যাত্রায় এই সেতুটির উদ্বোধন একটি দৃষ্টান্ত।

আঞ্চলিক যোগাযোগে বাংলাদেশের নেতৃত্বের আরেকটি দৃষ্টান্ত পদ্মা সেতু: পদ্মা সেতুর নির্মাণসাফল্যকে দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক যোগাযোগের উন্নয়নে বাংলাদেশের নেতৃত্বের ‘উদাহরণ’ হিসেবে বর্ণনা করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

দেশের দক্ষিণ জনপদের স্বপ্নের এই সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানিয়েছে ঢাকার মার্কিন দূতাবাস।

শুক্রবার দূতাবাসের এক বিবৃতিতে বলা হয়, অন্তর্ভুক্তিমূলক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যে মানুষের যাতায়াত ও পণ্য পরিবহনের জন্য টেকসই অবকাঠামো নির্মাণ গুরুত্বপূর্ণ।

পদ্মা সেতু বাংলাদেশের ভেতরে নতুন ও গুরুত্বপূর্ণ যোগাযোগ গড়ে তুলবে। ব্যবসা-বাণিজ্যের বিকাশ ঘটানোর পাশাপাশি জীবনযাত্রার মান উন্নয়নেও পদ্মা সেতু ভূমিকা রাখবে বলে আশা প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

বিবৃতিতে বলা হয়, পদ্মা সেতু নির্মাণ দক্ষিণ এশিয়ায় যোগাযোগ বিকাশে বাংলাদেশের নেতৃত্বের আরেকটি দৃষ্টান্ত।

৩০ হাজার ১৯৩ কোটি টাকার এই সেতু নির্মিত হয়েছে নিজস্ব অর্থায়নে; যদিও শুরুতে বিশ্বব্যাংকের ঋণ দেয়ার কথা ছিল এই সেতুতে।

দুর্নীতির অভিযোগ তুলে বিশ্বব্যাংক অর্থায়ন স্থগিত করলে তাদের সঙ্গে টানাপড়েনের মধ্যে দেশের টাকায় এই সেতু নির্মাণের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

২০১৫ সালে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ মূল সেতুর নির্মাণযজ্ঞ শুরু হয়। সেই কাজ শেষে শনিবার বহু প্রত্যাশার পদ্মা সেতু উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

পরদিন পদ্মা সেতু যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হবে।

পদ্মা সেতু সাহস, সংকল্প ও সমৃদ্ধির প্রতীক: ঢাকায় চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেছেন, পদ্মা সেতু আমার কাছে সাহসের একটি প্রতীক, সংকল্পের প্রতীক এবং সমৃদ্ধিরও প্রতীক।

পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানিয়ে এক ভিডিও বার্তায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

ঢাকায় চীনা দূতাবাসের ফেসবুক পেজের নিয়মিত আয়োজন ‘রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে এক মিনিট’ অনুষ্ঠানে শুক্রবার রাষ্ট্রদূতের ভিডিও বার্তাটি প্রচার করা হয়েছে।

লি জিমিং বলেন, ‘শনিবার একটি মহৎ দিন! বহুল প্রতীক্ষিত পদ্মা বহুমুখী সেতু অবশেষে উদ্বোধন হতে যাচ্ছে, আর এক দশকের স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে!

এ পর্যায়ে আমি এই অসামান্য অর্জনের জন্য বাংলাদেশের জনগণকে আমার আন্তরিক অভিনন্দন জানাতে চাই!