বিশ্বজুড়ে বাড়ছে হত্যাকাণ্ড

বাংলাবাজার পত্রিকা.কম
ডেস্ক: বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সম্প্রতি বেড়েছে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা। সিরিয়া, আফগানিস্তান ও পাকিস্তানে এসব খুন-হত্যা নিয়মিত ঘটনা হলেও, এবার তা ছড়িয়ে পড়েছে ইউরোপ-আমেরিকায়।

বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রে পরপর বেশ কয়েকটি বন্দুক হামলা ঘটেছে নির্মম হত্যাকাণ্ডের ঘটনা। এসব ঘটনায় স্কুলের কোমলমতি শিশু শিক্ষার্থীরাও বাদ যায়নি।

এমনকি মার্কিন মুলুকে পুলিশ সদস্যকেও গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। সুখ-সমৃদ্ধির দেশ ডেনমার্কের শপিংমলেও বন্দুক হামলায় ৩ জন প্রাণ হারিয়েছেন চলতি মাসেই।

এদিকে হত্যাকাণ্ডের ঢেউ আছড়ে পড়ল চির শান্তির দেশ হিসেবে পরিচিত জাপানেও। শুক্রবার নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর সময় গুলি করে হত্যা করা হয় জাপানের সবচেয়ে সফল প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আলোচিত নেতা শিনজো আবেকে।

একইভাবে ২০০৭ সালের ২৭ ডিসেম্বর পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডির এক নির্বাচনী সমাবেশ শেষে সভাস্থল ত্যাগ করার পর গাড়িতে আরোহণের পর মুহূর্তে গুলি করে হত্যা করা হয় দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টোকে।

সে সময় হামলাকারী প্রথমে তার ঘাড়ে গুলি করে এবং পরবর্তীকালে আত্মঘাতী বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়।

পুলিশ প্রতিবেদনে বলা হয়েছিলে, র্যালি শেষে বেনজীর তার এসইউভিতে চড়ে গন্তব্যে যাত্রা করবেন এমন সময় তার গাড়িতে এক বা একাধিক আততায়ী গুলিবর্ষণ করে।

ভারতও এ থেকে পিছিয়ে নেই। দেশটিতে ইতিপূর্বে ঘটেছে বিভিন্ন রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড।

এদিকে ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহেগেনের একটি শপিংমলে গুলি করে ৩ জনকে হত্যা করেছে এক বন্দুকধারী।

এ হামলায় আরও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। ৩ জুলাই কোপেনহেগেনের ভিসিনিটি অব ফিল্ড’স শপিং সেন্টারে এ হামলার চালানো হয় বলে জানিয়েছে দেশটির পুলিশ।

ডেনমার্কের পুলিশ জানিয়েছে, শপিংমলে এলোপাতাড়ি গুলি চালানোর ঘটনায় ২২ বছর বয়সী এক ডেনিশ নাগরিককে আটক করা হয়েছে।

অন্যদিকে বিশ্বের সবচেয়ে নিরাপদ দেশ হিসেবে খ্যাত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি নিরাপত্তাহীনতার শিকার হচ্ছে মানুষ। সম্প্রতি টেক্সাসের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এক বন্দুকধারী নির্বিচারে গুলি চালিয়ে ১৯ শিশুসহ মোট ২১ জনকে হত্যা করেছে।