ব্যাটসম্যানদের নৈপূণ্যে ভারতের সিরিজ জয়

বাংলাবাজার ডেস্ক
তিন ব্যাটসম্যানের হাফ-সেঞ্চুরিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ জিতলো স্বাগতিক ভারত। রোববার রাতে সিরিজে তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে ম্যাচে ভারত ৪ উইকেটে হারায় ক্যারিবীয়দের। ফলে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতে নেয় ভারত।

সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৮ উইকেটে ও দ্বিতীয় ম্যাচে ভারত ১০৭ রানে জিতে। অধিনায়ক বিরাট কোহলি ৮৫, লোকেশ রাহুল ৭৭ ও রোহিত শর্মা ৬৩ রান করে। ৩১ বলে অপরাজিত ৩৯ রান করে ভারতের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন জাদেজা।

কটকে সিরিজ নির্ধারনী ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করতে নামে ভারত। ব্যাট হাতে উদ্বোধনী জুটিতে দলকে ১৫ ওভারে ৫৭ রান এনে দেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই ওপেনার এভিন লুইস ও শাই হোপ। ২১ রান করা লুইসকে শিকার করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ শিবিরে প্রথম আঘাত হানেন জাদেজা। আরেক ওপেনার হোপ ৪২ রানে থামেন। তাকে শিকার করেন আরেক পেসার মোহাম্মদ সামি।
ওয়েস্ট ইন্ডিজের মিডল-অর্ডারের দুই ব্যাটসম্যান রোস্টন চেজ ও শিমরোন হেটমায়ারকে বড় ইনিংস খেলতে দেননি অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা নভদ্বীপ সাইনি। চেজ ৩৮ ও হেটমায়ার ৩৭ রান করে আউট হন।

১৪৪ রানের মধ্যে চতুর্থ উইকেট পতনের পর দলকে বড় সংগ্রহ এনে দেন নিকোলাস পুরান ও অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড। পুরান ১০টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৬৪ বলে ৮৯ রানে আউট হন। ৩টি চার ও ৭টি ছক্কায় ৫১ বলে অপরাজিত ৭৪ রান করেন পোলার্ড। ফলে ৫০ ওভারে ৫ উইকেটে ৩১৫ রানের সংগ্রহ পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ভারতের সাইনি ৫৮ রানে ২ উইকেট নেন।

জয়ের জন্য ৩১৬ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ভারতকে দুর্দান্ত শুরু এনে দেন দুই ওপেনার রোহিত ও রাহুল। ১২৮ বলে ১২২ রানের জুটি গড়েন তারা। রোহিত ৮টি চার ও ১টি ছক্কায় ৬৩ বলে ৬৩ রান করেন। রাহুলের ৮৯ বলে ৮টি চার ও ১টি ছক্কায় নিজের ইনিংসটি সাজান।

দুই ওপেনারের বিদায়ের পর ভারতের মিডল-অর্ডারে ধস নামে। শ্রেয়াস আইয়ার-ঋসভ পান্থ ৭ রান করে ও কেদার যাদব ৯ রানে আউট হন। ফলে ২২৮ রানে পঞ্চম উইকেট হারিয়ে ম্যাচ নিয়ে চিন্তায় পড়ে ভারত। ভারতের চিন্তা দূর করে জয়ের পথে নিয়ে আসেন কোহলি ও জাদেজা। ষষ্ঠ উইকেটে ৪৪ বলে ৫৮ রান করেন তারা। দলের জয় থেকে ৩০ রান দূরে থাকতে থামেন কোহলি।
পেসার শারদুল ঠাকুরকে নিয়ে ৮ বল বাকী রেখে ভারতের জয় নিশ্চিত করেন জাদেজা। ৪টি চারে ৩১ বলে অপরাজিত ৩৯ রান করেন জাদেজা। ৬ বলে ২টি চার ও ১টি ছক্কায় অপরাজিত ১৭ রান করেন ঠাকুর। ৮১ বলে ৯টি চারে নিজের ইনিংসটি সাজিয়ে ম্যাচ সেরা হয়েছেন কোহলি। সিরিজ সেরা হয়েছেন রোহিত।
আউট হবার পর ম্যাচ নিয়ে চিন্তায় পড়ে গিয়েছিলেন কোহলি।

ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, ‘আমি আউট হবার পর নার্ভাস হয়ে পড়েছিলাম। তবে জাদেজার সাথে কথা বলে আত্মবিশ্বাসী হলাম ম্যাচ জয়ের ব্যাপারে। জাদেজা ভালো খেলেছে। রোহিত-রাহুল দলের জয়ের ভিত গড়ে দিয়েছে। সিরিজে ছেলেরা ভালো খেলেছে। তাদের এই সিরিজ জয় প্রাপ্য ছিলো।’

সিরিজ হারলেও হতাশ নন ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক পোলার্ড, ‘আমি সিরিজ হার নিয়ে মোটেও হতাশ নই। অবশ্যই ফলাফল অনেক বড় বিষয়। কিন্তু এটি দেখতে হবে আমরা কোন অবস্থা থেকে এই সিরিজটি খেলেছি। ছেলেরা দুর্দান্ত লড়াই করেছে। আমি দলের প্রশংসা করবো। ভারত ভালো খেলেছে, তাদের সাথে প্রতিন্দ্বন্দিতামূলক ক্রিকেট খেলতে পেরেছি আমরা। দু’টি সিরিজেই বেশ উপভোগ্য ছিলো।’