রাজধানীতে পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত ৪

বাংলাবাজার ডেস্ক
রাজধানীতে পৃথক দুর্ঘটনায় নারীসহ চারজনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে গুলশানের নিকেতনে একটি বাসায় রাজমিস্ত্রির কাজ করার সময় ১০তম তলা থেকে নিচে পড়ে আল-আমিন (১৮) নামের এক নির্মাণশ্রমিক নিহত হয়েছেন। অপরদিকে মহাখালীতে অটোরিকশার ধাক্কায় অজ্ঞাতনামা (৪০) এক নারী প্রাণ হারিয়েছেন। মঙ্গলবার দুপুরে তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তখন চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

নিকেতনে নিহতের সহকর্মী হযরত আলী জানান, আল-আমিনের বাড়ি চাপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার চর অনুপনগরে। তার বাবার নাম আ. রশিদ (মৃত)। গুলশানে নিকেতনের ৬ নম্বর রোডের একটি নির্মাণাধীন ১০ তলা ভবনে কাজ করছিলেন তারা। থাকতেন ওই ভবনেই। সকালে ১০ তলায় কাজ করার সময় নিচে পড়ে যান আল-আমিন। পরে আহত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে পথচারী মারুফ হোসেন জানান, মহাখালীতে জাতীয় বক্ষব্যাধি ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের সামনের রাস্তায় হেঁটে যাওয়ার সময় একটি অটোরিকশা এক অজ্ঞাত নারীকে ধাক্কা দেয়। এতে তিনি পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হন। পরে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) বাচ্চু মিয়া জানান, এই দুজনের লাশ মর্গে রাখা হয়েছে।
অন্যদিকে, রাজধানীর নাখালপাড়ায় ট্রেনের ধাক্কায় দুইজন নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নাখালপাড়া বড় মসজিদ সংলগ্ন রেললাইনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত দুইজন হলেন- তাসলিমা (৩৮) ও নাদিম (২৮)। তারা নাখালপাড়ায় বসবাস করেন। তাদের দুইজনের মধ্যে কোনও সম্পর্ক নেই। ঢাকা রেলওয়ে থানার ওসি (কমলাপুর) রকিব-উল হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সকালে নাখালপাড়া বড় মসজিদ সংলগ্ন রেললাইন পার হচ্ছিলেন তাসলিমা ও নাদিম। এ সময় ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া তিতাস একপ্রেস ট্রেনের ধাক্কায় তাদের মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে রেলওয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধারে কাজ করছে।