জেমসের গানের অনুপ্রেরণায় চলচ্চিত্র

বাংলাবাজার পত্রিকা
বিনোদন: ‘এই শহরে তোমার পাশে, আমিও যে থাকি/ও লাল টুকটুক সেলাই দিদিমণি’। এদেশের গার্মেন্টসে কাজ করা লাখো নারীকে উৎসর্গ করে জেমস গেয়েছিলেন ‘দিদিমণি’ শিরোনামের গানটি।

সে গানে অনুপ্রাণিত হয়ে চলচ্চিত্র বানাতে যাচ্ছেন বাপজানের বায়োস্কোপ খ্যাত নির্মাতা রিয়াজুল রিজু। ফেব্রুয়ারী’র শুরুতেই ঢাকা এবং ঢাকার পার্শ্ববর্তী বেশ কিছু এলাকায় লেডী এ্যাকশন ধাঁচের এই চলচ্চিত্রটির শুটিং শুরু হবে।

এ প্রসঙ্গে রিয়াজুল রিজু বলেন, ‘বাপজানের বায়োস্কোপ বানানোর পর সঠিক টাইমিং এবং ব্যাটে বলে না মেলায় দীর্ঘদিন চলচ্চিত্র নির্মাণ থেকে বিরত ছিলাম, মাঝে প্রেমের কবিতা ও কাঙাল বানানোর ইচ্ছা থাকলেও বিভিন্ন জটিলতায় তা আর হয়ে উঠেনি।

তিনি বলেন, এবার আমার শুভাকাঙ্খিদের আশ্বস্ত করছি লেডী এ্যাকশন ধাঁচের দিদিমণি চলচ্চিত্রটি দ্রুত শেষ করে দর্শকদের উপহার দিতে পারব।

রিয়াজুল রিজু বলেন, আমি বাংলাদেশের হাতে গোনা দুই-চারজন সুপারস্টারের ভেতর অন্যতম জেমসের একজন অন্ধ ভক্ত। আমার এই চলচ্চিত্রটির নাম পছন্দ করার ক্ষেত্রে জেমসের গাওয়া গানটি আমাকে বেশ অনুপ্রেরণা যুগিয়েছে।

প্রধান নারী চরিত্র সহ অন্যান্য চরিত্র-কলাকুশলীতে বেশ চমক রয়েছে জানিয়ে রিজু বলেন, খুব শীঘ্রই আনুষ্ঠানিকভাবে সকলকে জানানো হবে।

উপমহাদেশের সর্বকনিষ্ঠ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া নির্মাতা রিয়াজুল রিজু’র চিত্রনাট্য ও পরিচালনায় ‘দিদিমণি’ চলচ্চিত্রটির কাহিনি ও সংলাপ লিখেছেন অনিক বিশ্বাস।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে ‘বাপজানের বায়োস্কোপ’ ছবিটি নির্মাণ করেন রিয়াজুল রিজু। চলচ্চিত্রটি সে বছর ‘সেরা চলচ্চিত্র’, ‘সেরা চলচ্চিত্র পরিচালক’সহ আটটি বিভাগে নয়টি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতে নেয়।

এছাড়াও তিনি বেশ কিছু নাটক ও টেলিভিশন প্রোগ্রাম নির্মাণ করেছেন।