মঙ্গলবার, ৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

একান্ত আলোচনায় মমতা-অমিত শাহ

একান্ত আলোচনায় মমতা-অমিত শাহ

ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক করতে কলকাতায় এসেছেন দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তার সঙ্গে কি আলাদা করে বৈঠক করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়? এ নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছিল শুক্রবার থেকেই। সেই গুঞ্জনই সত্যি হলো শনিবার দুপুরে।

নবান্ন সভাঘরে পশ্চিমবঙ্গের পাঁচ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে সীমান্ত সমস্যা নিয়ে আলোচনার পর নবান্নে নিজের কক্ষে অমিত শাহকে ডেকে নেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ১৪ তলার ঘরে দুইজনে প্রায় ১৬ মিনিট ধরে একান্তে আলোচনা করেন।

সূত্র জানায়, গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি অমিত শাহকে পাঞ্জাবি ও শাড়ি উপহার দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তা পেয়ে খুশি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

নবান্ন সূত্র জানায়, পূর্বাঞ্চলের ৫ রাজ্যের সঙ্গে নিরাপত্তা বৈঠকে সীমান্ত সমস্যা, অনুপ্রবেশ নিয়ে দীর্ঘ প্রায় আড়াই ঘণ্টা ধরে বৈঠক হয় অমিত শাহের। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহর সভাপতিত্বে ওই বৈঠকে কী কী বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে, তা নিয়ে এখনও রাজ্য বা কেন্দ্রের পক্ষে কোনও বিবৃতি প্রকাশ করা হয়নি।

তবে সূত্র জানায়, রেল এবং কেন্দ্রীয় সরকারের অন্যান্য অব্যবহৃত জমির প্রসঙ্গটি তুলে ধরেছেন মমতা হয় বৈঠকে। এর পাশাপাশি পাচার সমস্যা মোকাবিলায় রাজ্য পুলিশ ও সীমান্তরক্ষী বাহিনীর দায়িত্ব সংক্রান্ত বিষয়টিও বৈঠকে তুলে ধরা হয়েছে।

এরপর সেখান থেকে বেরিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর অনুরোধে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নবান্নের ১৪ তলায় তার নিজের ঘরে যান।

সেখানেই প্রায় ১৬ মিনিট ধরে একান্তে কথা বলেন মমতা-অমিত শাহ। তার হাতে একটি চিঠি তুলে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। কোন কোন বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে দুইজনের মধ্যে, তা নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

এদিকে, তাদের এই একান্ত বৈঠক নিয়ে রাজনৈতিক মহলে নানা সমালোচনাও শুরু হয়েছে। বিষয়টিকে অযথা রাজনৈতিক রং দেয়া হচ্ছে বলে মনে করছেন তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ।

তিনি বলেন, এটা নিয়ে রাজনীতি করছে বিজেপি। বাস্তব সমস্যা রয়েছে, বাংলার প্রাপ্য টাকা আটকে রাখা হচ্ছিল। সেটা যদি দুইজনের বৈঠকে সমাধান সূত্রের দিকে যায়, সে তো ভালো কথা।

সম্পাদক : তাসকিন ফাতেমা

প্রকাশক : জোবায়ের আহমেদ