মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই, ২০২৪

ওবায়দুল কাদেরর সঙ্গে আন্দোলনরত শিক্ষকদের বৈঠক স্থগিত, কর্মবিরতি চলছে

ওবায়দুল কাদেরর সঙ্গে আন্দোলনরত শিক্ষকদের বৈঠক স্থগিত, কর্মবিরতি চলছে

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য শিক্ষক-কর্মচারীদের কর্মবিরতির অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবারও ক্লাস-পরীক্ষাসহ সব কার্যক্রম বন্ধ ছিল। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে শিক্ষকদের বৈঠকও স্থগিত করা হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের প্রধান ফটকের সামনে আয়োজিত সমাবেশে ৩৫টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তত ৯০ জন শিক্ষক প্রত্যয় পেনশন স্কিম থেকে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়কে বাদ দেওয়ার দাবিতে একাত্মতা প্রকাশ করেন।

সমাবেশে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. নিজামুল হক ভূঁইয়া বলেন, সর্বজনীন পেনশন ব্যবস্থা সম্পূর্ণ বৈষম্যমূলক। এটি কিছু লোককে সুবিধা দেবে এবং কাউকে বঞ্চিত করবে। ‘এই পেনশন প্রকল্প আমাদের মর্যাদা ক্ষুন্ন করেছে এবং আমাদের আর্থিক বিষয় ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কথা ভাবতে বাধ্য করেছে।’

তিনি বলেন, ‘পেনশন স্কিমে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের অন্তর্ভুক্তি এ পেশার ওপর মারাত্মক প্রভাব ফেলবে। শিক্ষকদের এই প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত করা হলে তারা সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবেন।’ তাদের প্রত্যাশার বিষয়ে জানতে চাইলে অধ্যাপক নিজামুল হক বলেন, ‘আমরা আশা করছি কর্তৃপক্ষ আমাদের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলবে। আজ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে আমাদের বৈঠক হওয়ার কথা ছিল, কিন্তু জরুরি কর্মসূচির কারণে তিনি আজ আমাদের সঙ্গে যোগ দিতে পারেননি। আমরা শিগগিরই তার সঙ্গে কথা বলব বলে আশা করছি। আমরা নিশ্চিত কিছু সরকারি কর্মকর্তা প্রধানমন্ত্রীকে মিথ্যা বা বানোয়াট তথ্য দিয়ে বিভ্রান্ত করেছেন, তার সঙ্গে কথা বলতে পারলে সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।’

সভা বাতিলের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের যুগ্ম মহাসচিব আব্দুর রহিম বলেন, রাষ্ট্রীয় স্বার্থ জড়িত এমন কোনো গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচি থাকতে পারে। ‘কিন্তু আমাদের প্রয়োজনটাও গুরুত্বপূর্ণ। এ বিষয়ে গুরুত্ব দিতে হবে।  উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো দীর্ঘদিন বন্ধ থাকা দেশের জন্য শুভ নয়। দাবি না মানা পর্যন্ত আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাব। এর কোনো বিকল্প পথ নেই।’


সম্পাদক : জোবায়ের আহমেদ নবীন